Share on social media

কোপা আমেরিকার প্রায় দুই মাস পর বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে আবারও মুখোমুখি হয় দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা। কাতার বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচে বাংলাদেশ সময় রবিবার দিবাগত রাত ১টায় মাঠে নামে দুই দল। কোয়ারেন্টাইন বিতর্কে ম্যাচ মাঠে গড়ানোর ৫ মিনিটের মাথায় বন্ধ হয়ে যায়। সাইডলাইনে চলে হাতাহাতি ও বাকবিতণ্ডা। একটা সময় আর্জেন্টিনার খেলোয়াড়রা মাঠে ছেড়ে উঠে যান। শেষ পর্যন্ত ম্যাচটি মাঝপথে বাতিল হয়ে যায়।

মূলত কোয়ারেন্টাইন কাণ্ডে ম্যাচটি বাতিল হয়েছে। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে খেলা আর্জেন্টিনার চারজন খেলোয়াড় পুরোপুরি কোয়ারেন্টাইন না মেনে এই ম্যাচে খেলতে নেমেছিলেন। সেটা নিয়ে ভোটো দিয়েছে ব্রাজিলের স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ।

এমনকি ব্রাজিলের একজন স্বাস্থ্য কর্মকর্তা আর্জেন্টিনার একজন খেলোয়াড়ের সঙ্গে এ বিষয় নিয়ে সাইডলাইনে হাতাহাতিতে জড়ান। মুহূর্তের মধ্যে সেটা ছড়িয়ে পড়ে গোটা মাঠে। কিছুক্ষণ চলে ধাক্কাধাক্কি ও বাকবিতণ্ডা। এই ঘটনায় এক পর্যায়ে মাঠ ছেড়ে উঠে যান আর্জেন্টিনার খেলোয়াড় ও কর্মকর্তারা। এরপর থেকে প্রায় ৪৫ মিনিট ধরে ম্যাচ বন্ধ থাকে। যে চারজন খেলোয়াড়কে নিয়ে ভোটো দিয়েছে ব্রাজিল স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ তাদের ছাড়া আর্জেন্টিনা খেলতে রাজি হয়নি। এদিকে নেইমার ও তার সতীর্থরা চেষ্টা করেন স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের বোঝানোর।

মেসির এক সময়ের বার্সা সতীর্থ দানি আলভেস জার্সি খুলে চলে যান আর্জেন্টিনার ড্রেসিং রুমে। সেখান থেকে বুঝিয়ে সঙ্গে করে নিয়ে আসেন অধিনায়ক লিওনেল মেসিকে। মেসি এসে কথা বলেন ব্রাজিলের কোচ ও খেলোয়াড়দের সঙ্গে। সেখানে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য কর্মকর্তারাও।

কিন্তু কোনো ফল হয়নি। মেসি সেখান থেকে ফিরে ড্রেসিং রুম হয়ে সতীর্থদের সঙ্গে সোজা টিম বাসে গিয়ে ওঠেন এবং চলে যান। আর ম্যাচটি অবিশ্বাস্যভাবে বাতিল হয়।


Share on social media

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here