Share on social media

কাতার বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে ব্রাজিলের ঘরের মাঠ সাও পাওলোয় খেলা গড়িয়েছে ৫ মিনিট। এর মধ্যেই হঠাৎ বন্ধ করে দেয়া হলো ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার ম্যাচটি। আর্জেন্টাইন কয়েকজন খেলোয়াড়ের স্বাস্থ্য ছাড়পত্র ছাড়াই মাঠে নেমে পড়া নিয়ে ঝামেলা।

ব্রাজিলের জাতীয় স্বাস্থ্য তত্ত্বাবধান এজেন্সির একাধিক কর্মকর্তা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর একাধিক সদস্যদের নিয়ে হানা দেন মাঠে। হুট করে মাঠে ঢুকে পড়েন  এমিলিয়ানো বুয়েন্দিয়া, এমিলিয়ানো মার্টিনেজ, জিওভানি লো চেলসো ও ক্রিশ্চিয়ান রোমেরোকে আটক করার জন্য। খেলোয়াড় ও স্বাস্থ্য সংস্থার কর্মকর্তাদের মধ্যে হাতাহাতিও হয়েছে।

পরে মাঠ ছেড়ে চলে যান আর্জেন্টিনার ফুটবলাররা। খানিক বাদে আর্জেন্টাইন অধিনায়ক লিওনেল মেসি মাঠে ফেরেন। এরপর তিনি বেশ কিছুক্ষণ কথা বলে আবার ড্রেসিং রুমে ফেরেন। এরপরই খেলা স্থগিতের ঘোষণা আসে।

ব্রাজিলিয়ান হেলথ রেগুলেটরি এজেন্সির নির্দেশনা অনুয়ায়ী, ব্রাজিলিয়ান ছাড়া অন্য কেউ ব্রিটেন, উত্তর আয়ারল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা ও ভারত থেকে ব্রাজিলে প্রবেশ নিষিদ্ধ। যাদের ছাড় দেওয়া হয়েছে, তাদের অবশ্যই দেশটিতে আসার পর ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে।

কিন্তু এই নিয়ম মানা হয়নি আর্জেন্টিনার স্কোয়াডে থাকা ইংল্যান্ড থেকে আসা চার ফুটবলার এমিলিয়ানো বুয়েন্দিয়া, এমিলিয়ানো মার্টিনেজ, জিওভানি লো চেলসো ও ক্রিশ্চিয়ান রোমেরোর ক্ষেত্রে। নিয়ম না মানলেও তাদের একাদশে রাখে আর্জেন্টিনা।

এমিলিয়ানো মার্টিনেজ, ক্রিশ্চিয়ান রোমেরোদের কোয়ারেন্টাইন শর্ত না মানার অভিযোগ আগে থেকেই করে আসছিল ব্রাজিল।

বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে টানা সাত ম্যাচ জিতে শীর্ষে ব্রাজিল। সমান ম্যাচে অজেয় আর্জেন্টিনাও। সব মিলিয়ে হারেনি টানা ২১ ম্যাচে। দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের বাছাই পর্বে ৭ ম্যাচে ৭টি জয়ে ২১ পয়েন্ট ব্রাজিলের। অন্যদিকে, সমানসংখ্যক ম্যাচে ৪ জয় ও ৩ ড্রয়ে ১৫ পয়েন্ট নিয়ে ‍দ্বিতীয় স্থানে আর্জেন্টিনা।


Share on social media

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here