Share on social media

দেশে নিবন্ধন করে করোনাভাইরাসের টিকা পাওয়ার অপেক্ষায় আছে দেড় কোটির বেশি মানুষ। বিপরীতে সরকারের হাতে এখন টিকা রয়েছে মাত্র ৮৪ লাখ ৬ হাজার ডোজ। এর মধ্যেই মজুদ আছে সেকেন্ড ডোজের টিকাও। টিকা সংকটের কারণে দেশে এই মুহূর্তে গণটিকা কার্যক্রম হবে না। যখন যে পরিমাণ টিকা পাওয়া যাবে তা রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে সবাইকে দেয়া হবে বলে ইতিমধ্যে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

রবিবার সচিবালয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, টিকার জন্য কেন্দ্রে আর রেজিস্ট্রেশন করা যাবে না। রেজিস্ট্রেশন ছাড়া কেউ টিকা পাবে না। সাড়ে তিন কোটিরও বেশি মানুষ নিবন্ধন করেছেন এবং দুই কোটিরও বেশি মানুষ টিকা পেয়েছেন। যে পরিমাণ টিকা পাওয়া যাবে তার ওপর ভিত্তি করে নিবন্ধন করা হবে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য বলছে, দেশে এখন পর্যন্ত টিকা এসেছে ৩ কোটি ১৬ লাখ ডোজ। এর মধ্যে অন্তত এক ডোজ টিকা পেয়েছে ১ কোটি ৬৬ লাখ আর উভয় ডোজ সম্পন্ন করেছে ৬৫ লাখ ৭৫ হাজার মানুষ। এখন পর্যন্ত করোনার টিকা পেতে রেজিস্ট্রেশন করেছে সাড়ে তিন কোটির বেশি মানুষ।
আগামী সেপ্টেম্বরের মধ্যে ফাইজারের আরও ৬০ লাখ টিকা পাওয়া যাবে জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, “এ মাসে কিছু (টিকা) আসবে, বাকিগুলো সেপ্টেম্বরে। এ মাসের শেষে আরো দশ লাখ সিনোফার্ম টিকা আসবে”।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মাকোলজি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. মো. সায়েদুর রহমান বলেন, “বেশি মানুষকে টিকা দিলে সংক্রমণ কমবে। তবে টিকা নেয়ার পর মাস্ক না পরলে নতুন নতুন ভেরিয়েন্ট আসবে, সে বিষয়েও সতর্ক থাকতে হবে। এখন সংক্রমণ কমেছে, দ্রুত ৫৫ বছরের ঊর্ধ্বে দেড় কোটি মানুষকে ভ্যাকসিনেটেড করতে হবে। তাহলে মৃত্যু কমবে”।


Share on social media

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here