Share on social media

আজিজুল ইসলাম সজীব (হবিগঞ্জ প্রতিনিধি) : হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ পৌর নির্বাচনে অওয়ামী লীগের মোনানয়ন না পেয়ে বিদ্রোহী হিসেবে নির্বাচন করছেন শায়েস্তাগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি বর্তমান পৌর মেয়র মো. ছালেক মিয়া ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ সহ-সভাপতি মো. আতাউর রহমান মাসুক।

জেলা আওয়ামী লীগ সূত্রে জানা যায়, শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচনের জন্য ৫ জন প্রার্থীর তালিকা মনোনয়ন বোর্ডে প্রেরণ করা হয়। তালিকায় প্রার্থীর নাম হল :- শায়েস্তাগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সাবেক পৌর মেয়র মো. ছালেক মিয়া, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ সহ-সভাপতি মো. আতাউর রহমান মাসুক, পৌর আওয়ামী লীগ নেতা মো. আবুল কাশেম শিবলু, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও প্যানেল মেয়র মো. মাসুদুজ্জামান মাসুক এবং শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা যুবলীগ সভাপতি মো. ফজল উদ্দিন তালুকদার।

গত শনিবার আওয়ামী লীগের দলীয় প্রতিক (নৌকার) প্রার্থী হিসেবে শায়েস্তাগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও প্যানেল মেয়র মো. মাসুদুজ্জামান মাসুক মনোনয়ন দেয়া হয়।
কিন্তু তাকে দলীয় মনোনয়ন দিলেও বিদ্রোহী হয়েও নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত নেন শায়েস্তাগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক পৌর মেয়র মো. ছালেক মিয়া ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ সহ-সভাপতি মো. আতাউর রহমান মাসুক।

এ ব্যাপারে, মো. ছালেক মিয়া বলেন, ‘বিগত ৫ বছরে আমি পৌর এলাকার ব্যাপক উন্নয়ন করেছি। যে কারণে জনগণ আবারও আমাকে মেয়র হিসেবে দেখতে চায়। জনগণের দাবির মুল্যায়ন করতে গিয়ে মনোনয়ন না পাওয়ার পরও আমাকে নির্বাচন করতে হচ্ছে।
তিনি আরো বলেন, আমার সপ্ন শায়েস্তাগঞ্জ পৌর এলাকাকে একটি সুন্দর ও আধুনিক একটি মডেল পৌরসভায় রূপান্তর করে পৌরবাসীকে উপহার দিতে। আমার এই সপ্ন পূরণ করতে বেশ কিছু কাজ এখনও অসম্পূর্ণ রয়েছে। সেই কাজগুলো সম্পন্ন করার জন্য জনগণ আবারও আমাকে দায়িত্ব দিবে বলে আমি মনেপ্রাণে বিশ্বাস করি।
অপর দিকে, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ সহ-সভাপতি মো. আতাউর রহমান মাসুক বলেন, ‘আমি আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন চাইলেও দল আমাকে মনোনয়ন দেয়নি। কিন্তু শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভার জনগণ চায় আমি নির্বাচন করি। তাই আমি আমার নির্বাচনের সিদ্ধান্ত অটল রয়েছি। তিনি এও বলেন, ‘আমি দলের একজন নিবেদিত কর্মী। দলের জন্য আমি অনেক কিছু করেছি। তাই আশা করি নির্বাচন করলেও দলের নেতাকর্মীরা আমার প্রতি অসন্তুষ্ট হবেন না।
নির্বাচন কমিশনের দেওয়া তফসিল অনুযায়ী মনোনয়ন দাখিলের শেষ দিন আজ ১ ডিসেম্বর, মনোনয়ন বাছাই হবে ৩ ডিসেম্বর, প্রার্থীতা প্রত্যাহার ১০ ডিসেম্বর এবং ইভিএম পদ্ধতিতে ভোটগ্রহণ ২৮ ডিসেম্বর।
৯টি ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত প্রথম শ্রেণির এ পৌরসভার আয়তন ১০ দশমিক ৪০ বর্গকিলোমিটার। মোট ভোটার সংখ্যা প্রায় ১৭ হাজার ৯৬১। এর মধ্যে পুরুষ ৮ হাজার ৮৩৫ জন এবং নারী ৯ হাজার ১২৬ জন।


Share on social media

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here