Share on social media

মাখন অন্যতম পুষ্টিকর খাবার। সুস্বাস্থ্যের জন্য অনেকে নিয়মিত মাখন খান। এবার জেনে নিন মাখন খাওয়ার আরও অনেক উপকারিতা সম্পর্কে।

দিন যত পাল্টে যাচ্ছে, ততই পাল্টে যাচ্ছে নিয়ম, ভাবনা। ছোটবেলা থেকেই শুনে আসা, একটা নির্দিষ্ট বয়সের পর নাকি ঘি, মাখন থেকে দূরে থাকাই উচিত। বয়স বাড়লে, তৈলাক্ত খাবার একেবারেই নয়।

এমনকি বিভিন্ন সময় চিকিৎসকরাও বলেন, হৃদপিন্ড ভালো রাখতে তেলযুক্ত খাবার থেকে দূরে থাকাই ভালো। কোলেস্টেরল, সুগার, রক্তচাপ সব ক্ষেত্রেই তেলকে দোষ দেন চিকিৎসকরা।

নতুন গবেষণায় এসেছে নতুন তথ্য। নিয়মিত মাখন খেলে নাকি হৃদপিন্ড খারাপ নয়, উল্টো এড়ানো সম্ভব হবে হৃদরোগ।

মার্কিন বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষণায় এসেছে এরকমই তথ্য। গবেষণা অনুযায়ী, মাখনের পরিবর্তে অনেকেই বেছে নিয়েছেন মার্জারিন। অন্যদিকে অলিভ ওয়েলকে বেছে নিয়েছেন রান্নার তেল হিসেবে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, অলিভ ওয়েল ও মার্জারিনে মাখন বা সর্ষের তেলের তুলনায় রয়েছে বেশি মাত্রায় ফ্যাট, যা শরীরের পক্ষে মোটেই ভালো নয়। সঙ্গে গবেষণায় এসেছে, মাখনের মধ্যে থাকা ‘ডেয়ারি ফ্যাট’। হৃদপিন্ডের পক্ষে ভালো।
চিকিৎসকরা অবশ্য জানিয়েছেন, মাখন নিয়মিত খাওয়া নিশ্চয়ই ভালো। কিন্তু পরিমাণ অবশ্যই হবে অল্প। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, মাখন দিয়ে রান্না করা খাবার না খেয়ে, ব্রেকফাস্টে অল্প করে মাখন নিয়মিত খেলে হৃদরোগ এড়ানো সম্ভব।


Share on social media

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here