Share on social media

করোনার জন্য জাদুকরী কোনো ওষুধ বা টিকার অপেক্ষা বাদ দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের বস্টন ইউনিভার্সিটির এক চিকিৎসক। মাইকেল হলিক নামের ওই চিকিৎসক বলেছেন, পর্যাপ্ত পরিমাণ ভিটামিন ডি গ্রহণ করলে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি ৫৪ শতাংশ পর্যন্ত কমে যেতে পারে। নতুন এক গবেষণায় এমনটাই দেখা গেছে। খবর বস্টন হেরাল্ডের।

বস্টন ইউনিভার্সিটি স্কুল অব মেডিসিনের অধ্যাপক মাইকেল হলিক বলেন, মানুষ এখন করোনা থেকে মুক্তিতে জাদুকরী কোনো ওষুধ বা টিকার জন্য অপেক্ষা করছে। কিন্তু এই সোজা উপায় কেউ নিচ্ছে না।

হলিক ও তার সহযোগীরা যুক্তরাষ্ট্রের ৫০টি অঙ্গরাজ্য থেকে এক লাখ ৯০ হাজার নাগরিকের রক্তের নমুনা পরীক্ষা করেন। এ সময় তারা দেখেছেন, যাদের শরীরে ভিটামিন ডি পর্যাপ্ত মাত্রায় আছে, তাদের করোনায় আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি যাদের এর ঘাটতি আছে, তাদের তুলনায় ৫৪ শতাংশ কম।

গবেষণায় বলা হয়, ভিটামিন ডি স্বল্পতার কারণে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বাড়ে। এ-সংক্রান্ত গবেষণা প্রতিবেদন পাবলিক লাইব্রেরি অব সায়েন্স ওয়ানে (প্লস ওয়ান) প্রকাশিত হয়েছে।
হলিক বলেন, আপনার যত ভিটামিন ডি থাকবে, ততই করোনার ঝুঁকি কমবে। ভিটামিন ডির বড় উৎস সূর্যের আলো। অনেকেই এ থেকে বঞ্চিত হন। বিশেষ করে শীতের মাসগুলোয় বলেন তিনি।
রক্তে ভিটামিন ডির ইতিবাচক উপস্থিতির সঙ্গে কভিড-১৯-এ সংক্রমণের বড় ধরনের সম্পর্ক আছে। জাতি ধর্ম লিঙ্গ নির্বিশেষে এর প্রমাণ মিলেছে। এমনটাই বলা হয়েছে গবেষণায়।

ভিটামিন ডি ব্যাপক মাত্রায় সাইটোকাইন নিঃসরণে বাধা দেয়। অর্থাৎ সাইটোকাইন স্টর্মে এটি বাধার সৃষ্টি করে। কভিডে মৃত্যুর অন্যতম কারণ এই সাইটোকাইন স্টর্ম।

প্রতিদিন একজন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের দুই হাজার ইউনিট ভিটামিন ডি দরকার হয়। হলিক বলেন, তিনি কয়েক দশক ধরে ছয় হাজার ইউনিট ডি নিচ্ছেন। আর এ জন্য তার স্বাস্থ্যও বেশ ভালো আছে।


Share on social media

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here